ঢাকা   শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

মোস্তাফিজের পর সাকিবের আঘাত, ফিরে গেলেন অ্যাকারম্যান

খেলাধূলা

আধুনিক স্পোর্টস

প্রকাশিত: ১৫:৫৯, ২৮ অক্টোবর ২০২৩

মোস্তাফিজের পর সাকিবের আঘাত, ফিরে গেলেন অ্যাকারম্যান

 

মোস্তাফিজের পর সাকিবের আঘাত
আগের উইকেটেই মোস্তাফিজকে সাহায্য করেছিলেন সাকিব। এবার সাকিবকে সাহায্য করলেন মোস্তাফিজ। তাতে ৭ বলের মধ্যে ২ উইকেট হারাল নেদারল্যান্ডস। লেগ সাইডের বলে, স্লো হয়ে এসেছিল। সুইপ করতে গিয়ে ফাইন লেগে মোস্তাফিজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরতে হলো অ্যাকারম্যানকে। ৩৩ বলে ১৫ রান করেছেন এই ব্যাটার।

বারেসিকে ফিরিয়ে স্বস্তি এনে দিলেন মোস্তাফিজ
উইকেটে এসেই আক্রমণাত্মক হয়ে উঠছিলেন ওয়েসলি বারেসি।আগের ওভারে সাকিবকে পুল করে চার মেরেছিলেন। মারলেন মোস্তাফিজকেও। কিন্তু মোস্তাফিজের স্লোয়ার বুঝতে পারেননি। সোজা ক্যাচ নিয়েছেন সাকিব। তাতে ভাঙে ৫৯ রানের জুটি। বারেসি থামলেন ৪১ রান করেই।

 

বারেসির পাল্টা আক্রমণে শেষ প্রথম পাওয়ারপ্লে
শুরুতেই ২ উইকেট হারানোর পর পাল্টা আক্রমণ শুরু করে নেদারল্যান্ডস।তাদের ঘুরে দাঁড়ানোর পেছনে মূল অবদান বারেসির। তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ১০ ওভার শেষে ডাচদের সংগ্রহ ৪৭/২।প্রথম পাওয়ারপ্লের শেষ ২ ওভারে দুই প্রান্ত থেকে এসেছেন দুই স্পিনার সাকিব ও মিরাজ।

 

জোড়া আঘাত সামলে ডাচদের পাল্টা প্রতিরোধ
শুরুতে ২ উইকেট হারালেও নেদারল্যান্ডস পাল্টা আক্রমণের চেষ্টাই করে যাচ্ছে। ও’ডাউড আউট হওয়ার পর খোলস ভাঙার চেষ্টা করে যাচ্ছেন ওয়েসলি বারেসি। বেশ আক্রমণাত্মক হয়ে উঠছেন তিনি। সর্বশেষ ১৬ বলে এসেছে ৪টি বাউন্ডারি। যার ৩টিই বারেসির। 

তাসকিনের পর শরিফুল
শরীফুল ইসলামের বলটা বেরিয়ে যাচ্ছিল অফ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে। না চাইতেও যেন ব্যাট পেতে দিলেনম্যাক্স ও’ডাউড।ব্যাটের কানা ছুঁয়ে ক্যাচ গেছে স্লিপে। একমাত্র স্লিপে থাকা তানজিদ হাসান বাঁ দিকে লাফ দিয়ে লুফে নিয়েছেন ক্যাচ। ৫ বলের মধ্যে ২ উইকেট হারাল নেদারল্যান্ডস।


দ্বিতীয় ওভারে তাসকিনের আঘাত
ফুললেংথ বলটা ঘুরিয়ে খেলতে গিয়েছিলেন বিক্রমজিত সিং। তবে টাইমিং মেলাতে পারেননি। মিড অফে সাকিব আল হাসান নিয়েছেন সহজ ক্যাচ। দ্বিতীয় ওভারের চতুর্থ বলে প্রথম উইকেট। দুই ম্যাচ পর ফিরেই সফল তাসকিন আহমেদ।

 

দুই পরিবর্তন নিয়ে নেমেছে বাংলাদেশ
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচের একাদশে দুই পরিবর্তন এনে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।স্পিনার নাসুম আহমেদের জায়গায় দলে এসেছেন শেখ মেহেদী। হাসান মাহমুদের জায়গা দখল করেছেন তাসকিন আহমেদ।

বাংলাদেশ একাদশ: তানজিদ হাসান, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ, মেহেদি হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদী, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

নেদারল্যান্ডস একাদশ: ম্যাক্স ও’ডাউড, বিক্রমজিৎ সিং, ওয়েসলি বারেসি, কলিন অ্যাকারম্যান, স্কট এডওয়ার্ডস (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), বাস ডি লিড, সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখ্ট, লোগান ভ্যান বেক, শরিজ আহমেদ, আরিয়ান দত্ত ও পল ভ্যান মিকারেন।


টস
ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নেদারল্যান্ডসের অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস। নেদারল্যান্ডসের আমন্ত্রণে বল করবে বাংলাদেশ।

 

বিশ্বকাপে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে আজ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। আসরে টিকে থাকতে হলে বাংলাদেশের জন্য এই ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। ভারতের ‘সিটি অব জয়’ খ্যাত কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে বাংলাদেশ সময় দুপুর আড়াইটায় শুরু হবে ম্যাচটি।

সেমিফাইনালে ওঠার শেষ সুযোগ
এই ম্যাচ বাংলাদেশের জন্য সেমিফাইনালে ওঠার শেষ সুযোগ। ইতোমধ্যে আসরের ৫ ম্যাচের মধ্যে ৪টিতেই হারের মুখ দেখা বাংলাদেশের সামনে এই ম্যাচসহ বাকি তিন ম্যাচ অঘোষিত ফাইনাল। জিতলে সুযোগ থাকবে সমীকরণের হিসেবে শেষ চারে খেলার। আর হারলেই ধরতে হবে দেশে ফেরার বিমান।

ফিরতে পারেন তাসকিন ও তাওহীদ
নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে একাদশে ফিরতে পারেন পেসার তাসকিন আহমেদ। কাঁধের চোটের কারণে দুই ম্যাচ খেলতে পারেননি তাসকিন। নেদারল্যান্ডস ম্যাচের আগে তাকে পুরোদমে বোলিং করতে দেখা গেছে। দলে ফিরতে পারেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাদ পড়া তাওহীদ হৃদয়ও। সে হিসেবে এই ম্যাচে পাঁচ বোলার নিয়ে নামতে পারে বাংলাদেশ।

পরিসংখ্যানের হিসেবনিকেশ
একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে বাংলাদেশের পরিসংখ্যানের পাল্লা সমানে সমান। ওয়ানডেতে টিম টাইগার্স ডাচদের মুখোমুখি হয়েছে দুবার। তাতে প্রথমবার বাংলাদেশকে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করে ডাচরা। পরেরবার অবশ্য হিসেবনিকেশ সমতায় ফেরায় বাংলাদেশ।


২০১০ সালের প্রথম দেখায় হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার দলকে। ৩০ ওভারের সেই ম্যাচে বাংলাদেশের দেয়া ১৯৯ রানের লক্ষ্যে নেমে ৬ উইকেটে জয় তুলে নেয় ডাচরা। বিপরীতে ঘরের মাঠে ২০১১ বিশ্বকাপে অবশ্য জয় তুলে নিয়েছিল সাকিব আল হাসানের দল। 

চলতি আসরে দুই দলেরই পয়েন্ট সমান। পাঁচ ম্যাচে এক জয়ে ২ পয়েন্ট করে প্রায় পিঠাপিঠি অবস্থান করেছে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। নেট রানরেটে এগিয়ে দশ দলের পয়েন্ট টেবিলে সাকিবরা আছেন আটে। ডাচদের অবস্থান তলানিতে। ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে দক্ষিণ আফ্রিকা।

আরও পড়ুন